যায়যায়বেলা
যায়যায়বেলা

ঘরে ঢুকে কিশোরীর দুই হাত-পায়ের রগ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

যায়যায়বেলা ডেক্স  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পৌর শহরে সামিয়া-(১৫) নামে এক কিশোরীকে ঘরে ঢুকে দুই হাত- পায়ের রগ ও গলা কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

আজ বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি)সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর শহরের পূর্ব মেড্ডায় এই ঘটনা ঘটে। আহত সামিয়া জেলার সরাইল উপজেলার ইসলামাবাদ (গোগদ) গ্রামের রাশেদ মিয়ার মেয়ে। সে পূর্ব মেড্ডায় তার ভগ্নিপতির বাসায় থেকে স্থানীয় একটি মাদরাসায় পড়াশোনা করে।

পরিবার ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকালে সামিয়ার বোন সামিয়া ও তার মেয়েকে (সামিয়ার ভাগ্নি)কে বাড়িতে রেখে বাজারে যায়। কিছুক্ষণ পর সামিয়াকে ঘরে রেখে তার ভাগ্নি বাসার ছাদে যায়। কিছুক্ষণ পর সামিয়ার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এসে সামিয়ার কক্ষে গিয়ে দেখতে পান সামিয়া মেঝেতে পড়ে আচে। তার গলা, দুই হাত ও পায়ের রগ কাটা। তারা সামিয়াকে দ্রুত উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের সার্জারী বিভাগে ভর্তি করে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ও হাসপাতালে আসে সামিয়াকে দেখতে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, ওই কিশোরীকে সার্জারী বিভাগে ভর্তি দেওয়া হয়েছে। সেখান থেকে সার্জারী বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা তাকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে গেছেন। তবে সে আশংকামুক্ত রয়েছেন।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সোহরাব আল হোসাইন বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি ও হাসপাতালে গিয়ে সামিয়ার খোঁজ-খবর নেই। তিনি বলেন, হামলাকারীরা মুখোশ পরিহিত ছিলো। ধারণা করা হচ্ছে পূর্ব শত্রুতার জেরে ঘটনা ঘটেছে। আশা করি তদন্তে ঘটনার রহস্য উদঘাটিত হবে।

যায়যায়বেলা