যায়যায়বেলা
যায়যায়বেলা

নিদারাবাদ ইউনিয়ন স্কুল এন্ড কলেজের প্রভাষক নিয়োগে কারসাজি ও অনিয়মের অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার নিদারাবাদ ইউনিয়ন স্কুল এন্ড কলেজের নতুন প্রভাষক নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে কারসাজি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে প্রতিষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুল হান্নান মোঃ আজমলের বিরুদ্ধে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বিদ্যালয়টি নতুন ভাবে কলেজ শাখা অনুমোদন হওয়ার পর গত ২৫-০৭-২০২৩খ্রি. বিভিন্ন পদে প্রভাষক ও কর্মচারি নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন প্রতিষ্ঠান প্রধান। পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর অন্যান্য বিষয়ের পাশাপাশি অর্থনীতি (প্রভাষক) বিষয় পদে তিনজন প্রার্থী আবেদন করেন। কিন্তু বর্তমানে প্রভাষক ও কর্মচারি নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতি গ্রহণ করেন প্রতিষ্ঠানটি। তবে বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশিত অন্যান্য পদে পরীক্ষা গ্রহণের প্রার্থীদের নিকট প্রবেশপত্র ইস্যু করলেও অর্থনীতি পদে যারা আবেদন করেছেন তাদেরকে কোন প্রকার বার্তা বা প্রবেশপত্র ইস্যু করেননি ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ। এদিকে অর্থনীতি বিষয়ে কেন পরীক্ষা নেয়া হবে না এ বিষয়ে জানতে চান ভুক্তভোগীরা। ভুক্তভোগীদেরকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জানান, বিধি অনুযায়ী একপদে তিনজন প্রার্থীর আবেদন থাকতে হয়। এদিকে অর্থনীতি পদে শুধু একটি আবেদন পড়েছে। তাই নিয়োগের কোরাম না হওয়ায় এটার পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হচ্ছে না। পক্ষান্তরে জানা গেছে, এ নিয়োগে অর্থনীতি পদে তিনটি আবেদন জমা হয়েছে এবং নিয়োগ প্রক্রিয়া বাস্তবায়ন করার জন্য সবকিছু ঠিক আছে। এখানে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ তথ্যগোপন ও মিথ্যাচার করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। আবেদনকারীরা অভিযোগ করে বলেন, কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সে তার পছন্দের লোক,স্বজনপ্রীতি এবং অন্যান্য সুবিধা নিতে আমাদেরকে ব্যাতিরেকে পরীক্ষার আয়োজন করেছেন। তিনি আমাদের সাথে প্রতারণা ও মিথ্যাচার এবং তথ্য গোপন করেছেন। নিয়োগ পরিক্ষা নিয়ে তার কারসাজি ও অনিয়ম এখন সবার চোখে ধরা পড়েছে। তাই তার সুষ্টু তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা দাবি জানান ভুক্তভোগীরা।

এ ব্যাপারে বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ এইচ ইরফান উদ্দিন আহমেদ বলেন,তদন্ত করে বিধি মোতাবেক ব্যবস্হা নেওয়ার জন্য মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

যায়যায়বেলা