যায়যায়বেলা
যায়যায়বেলা

রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের গাছ বিক্রিতে অনিয়মের অভিযোগ

খায়রুল কবির, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সরকারি গাছ বিক্রিতে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। সরেজমিনে ও স মিলের মালিকদের সাথে বলে জানা যায়,পাচঁ বছর আগে গাছগুলো নিলামে দুই লক্ষ টাকা ডাক দিলেও বিক্রি করা হয়নি।এখন গাছগুলো ১ লক্ষ ১৩ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেওয়া হয়েছে। প্রগতি স মিলের মালিক জসিম উদ্দিন জানান, পাঁচ বছর আগে গাছগুলো আমি দুই লক্ষ টাকা ডাক দিলেও তখন আমাকে দেয়নি বলছে এখন গাছ গুলো বিক্রি হবেনা।পাঁচ বছরে গাছগুলো অনেক বড় হয়েছে এখন কিভাবে গাছ গুলো ১লক্ষ ১৩ হাজার টাকায় বিক্রি করে,কখন কে বা কারা কিনছে, বিক্রি করছে আমরা জানিনা বর্তমানে হাসপাতালের গাছগুলো ৫ লক্ষ টাকার উপরে বিক্রি হওয়ার কথা এখন তারা কিভাবে সিন্ডিকেট করে বিক্রি করছে আমাদের জানা নেই। জনতা স মিলের মালিক লোকমান হোসেন বলেন,হাসপাতালের গাছগুলো কিভাবে বিক্রি করছে আমরা জানিনা তারা কয়েকজন মিলে সিন্ডিকেট করে কিভাবে বিক্রি করছে আমাদের জানা নেই।পাঁচ বছর আগে ২ লক্ষ টাকা ডাক হইছে এখন কিভাবে ১লক্ষ ১৩ হাজার টাকা বিক্রি করছে আমরা জানিনা কবে নিলাম ডাক হইছে তাও আমাদের জানা নেই।সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপজেলা সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃনোমান মিয়া বলেন ১৫/১২/২১ তারিখে চারটি কড়ই গাছ পূণঃনিলামের জন্য আবেদন করি যার প্রেক্ষিতে ০২/০৩/২২ তারিখে আমাদের গাছগুলো বিক্রির জন্য অনুমোদন দিলে প্রকাশ্যে পূণঃ নিলামের ব্যবস্থা করি এবং ০৭/০৩/২২ তারিখে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে প্রকাশ করে ২১ দিন হাসপাতালের নোটিশ বোর্ডে টাঙিয়ে রাখি পরবর্তীতে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে আলাউদ্দিন কে নির্ধারিত দামের চেয়ে একটু বেশী ১ লক্ষ ১৩ হাজার টাকা রেজুলেশন আকারে গ্রহন করি এবং সরকারি কোষাগারে জমা করি।আগের নিলামের ডাকের বিষয়ে জানতে চাইলে ডাঃনোমান মিয়া বলেন আমি এখানে তিন বছর আগে এসেছি আমার আমলে কোন ডাক হয়নি,তবে আমি শুনেছি আমি আসার আগে একটি নিলাম ডাক হয়েছিল কিন্তুুু সমন্বয়ের অভাবে ডাকটি কার্যকর হয়নি।

যায়যায়বেলা