যায়যায়বেলা
যায়যায়বেলা

স্বামীকে শিক্ষা দিতে শিশু পুত্রকে হত্যা, মা গ্রেপ্তার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে স্বামীকে উচিত শিক্ষা দিতে ২ মাস বয়সী শিশু পুত্র সাইমকে পুকুরে ফেলে হত্যা করেছে তাহমিনা আক্তার-(২৬) নামে এক মা। গত শনিবার রাতে উপজেলার পূর্বভাগ ইউনিয়নের চান্দেরপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে

সোমবার(১৩মার্চ)সকালে পুলিশ তাহমিনা আক্তারকে গ্রেপ্তার করেছে। তাহমিনা বেগম পূর্বভাগ ইউনিয়নের নূরপুর গ্রামের ইটভাটা শ্রমিক খোকন মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, প্রায় ১১বছর আগে তাহমিনার সাথে খোকন মিয়ার পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। এরই মধ্যে তাদের ঘরে ২ ছেলে ও ৩ মেয়ে জন্ম নেয়। সাইম হচ্ছে তাদের ছোট ছেলে। সাইমের জন্মের পর তার নাম রাখার সময় খাবারের আয়োজন করে খোকন মিয়া। কিন্তু খোকন মিয়া তাহমিনার বাবার বাড়ির কম লোকজনকে দাওয়াত দেয়ায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মনমালিন্যের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে স্বামীর সাথে রাগ করে তাহমিনা বাবার বাড়ি চান্দের পাড়া গ্রামে চলে যায়। সেখানে গিয়ে তাহমিনা স্বামীকে শিক্ষা দেয়ার জন্যে ফন্দি আটতে থাকে।

শনিবার রাত ১১টার দিকে শিশু সাইমকে বাড়ির পাশের পুকুরে ফেলে দেয়। পরে তাহমিনা গ্রামের মানুষের কাছে ছড়িয়ে দেয় খোকন মিয়া এসে শিশু সাইমকে নিয়ে পালিয়ে গেছে। রোববার সকালে স্থানীয়রা পুকুরে গোসল করতে গিয়ে শিশুর লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে তার লাশ উদ্ধার করে। লাশ উদ্ধারের পর তাহমিনা অসংলগ্ন কথাবার্তা বলতে থাকায় সোমবার সকালে তাহমিনাকে করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)হাবিবুল্লাহ সরকারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সতত্যা নিশ্চিত করে বাংলা টাইমসকে বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাহমিনা আক্তার পুলিশের কাছে শিশু সন্তানকে পুকুরে ফেলে হত্যার দায় স্বীকার করেছে। এ ঘটনায় খোকন মিয়া বাদী হয়ে স্ত্রী তাহমিনা আক্তারের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

যায়যায়বেলা