যায়যায়বেলা
যায়যায়বেলা

স্বামী দুই ছেলের পর না ফেরার দেশে রেখাও

জেলা প্রতিনিধি;

হ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে আবাসিক ভবনে লাগা আগুনে দগ্ধ হয়ে স্বামী ও দুই ছেলেকে হারানোর পর রেখা বেগমও (৩২) মারা গেছেন। সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাত সোয়া ১১টায় শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি 

রেখা আশুগঞ্জ উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের মকবুল হোসেনের স্ত্রী।

মকবুলের চাচা শরীফ হোসেন জানান, গতকাল রোববার থেকে রেখার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। সোমবার অবস্থা আরও খারাপ হওয়ায় তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন চিকিৎসকরা। এর মধ্যেই রাতে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে গত ২২ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ১০টায় আশুগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের শরীয়তনগর এলাকার আলাই মিয়ার পাঁচতলা বিশিষ্ট ভবনের নিচতলায় আগুন লাগে। নিচতলার একটি বাসায় স্ত্রী ও দুই ছেলে সন্তান নিয়ে ভাড়া থাকতেন মকবুল হোসেন। প্রায় এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আশুগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। 

পরে বাসার ভেতর থেকে মকবুল হোসেনের ছোট ছেলে জুবায়েরের (০৭) দগ্ধ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় দগ্ধ মকবুল (৪০) ও তার স্ত্রী রেখা বেগম (৩২) এবং তাদের বড় ছেলে জয়কে (০৯) মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকায় পাঠানো হয়। পরে ২৩ ফেব্রুয়ারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মকবুলের মৃত্যু হয়। এরপর ২৭ ফেব্রুয়ারি মারা যায় জয়

যায়যায়বেলা